Recents in Beach

header ads

চুল লম্বা করার সহজ দুটি উপায় | কিভাবে চুল লম্বা করতে পারি | ছোট চুল বড় করার উপায়

চুল লম্বা করার সহজ দুটি উপায় | কিভাবে চুল লম্বা করতে পারি | ছোট চুল বড় করার উপায়


Large hair

যুগ বদলানোর সাথে সাথে এখনকার নারীরা চুলের যত্নে নারিকেল তেল কি বেছে নিয়েছেন। অথচ দূষণ পানি রাসায়নিক ইত্যাদি প্রভাবে আমাদের চুল রুক্ষ শুষ্ক হয়ে গেছে। আর শুষ্ক হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা ও চুল পরা বন্ধ করার জন্য সরিষার তেল যে কতটা উপকারী তা অনেকেরই জানা নেই। অন্যান্য ভিটামিন এর পাশাপাশি এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে জিংক, বিটা ক্যারোটিন ও সেলেনিয়াম রয়েছে।

যা চুল লম্বা করার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সরিষার তেল মাথার ত্বকের ব্লাড সার্কুলেশন বাড়িয়ে দেয়। যা চুলের গোড়াকে ব্যাপকভাবে মজবুত করে। তাই আজ আমি আপনাদের সাথে সরিষার তেলের খুব কার্যকর এবং সহজ 2 টি হেয়ার প্যাক শেয়ার করছি। যা চুল পড়া বন্ধ করে আপনার চুলের বৃদ্ধিতে অনেক সাহায্য করবে। এমনকি মাথার ত্বক থেকে খুশকি দূর করে দেবে।

প্রথম টিপস

এর জন্য প্রথমেই একটি শুকনো বাটিতে টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল নিতে হবে। পাতলা চুলকে ঘন করার জন্য এবং মাথার ত্বকে নতুন চুল গজানোর জন্য ক্যাস্টর অয়েল অত্যন্ত উপকারী। তারপর এক চামচ এলোভেরা জেল দেবেন। এবারের মধ্যে দিবেন এক টেবিল চামচ সরিষার তেল। সরিষার তেলের মধ্যে বেটা কেরোটিন, ফ্যাটি এসিড, ভিটামিন ই, ওমেরাথ্রি রয়েছে। যা চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এছাড়া সরিষার তেলে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান রয়েছে। যা অকালে চুল পেকে যাওয়া প্রতিরোধ করে।
পাশাপাশি আপনার মাথার ত্বকে এলার্জি থাকলে সেটাও দূর করে ফেলবে। আপনি চাইলে এই মিশ্রণ টিকে একটি এয়ারটাইট কন্টেনের ভরে ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে পারবেন। আর রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই মিশ্রণটির সাহায্যে আপনার চুলের গোড়ায় হালকা হাতে পাঁচ থেকে দশ মিনিট মাসাজ করুন। এবং প্রত্যেকটা চুলের গোড়ায় এই মিশ্রণটিকে লাগিয়ে নিন। আপনি চাইলে এই মিশ্রণটিকে আপনার পুরো চুলেও ব্যবহার করতে পারেন।

লাগানোর পর ওই ভাবেই ঘুমিয়ে পড়ুন এবং পরদিন সকালে আপনার চুলকে শ্যাম্পু করে নিন। এই মিশ্রণ টিকে আপনি সপ্তাহে ১ থেকে 2 দিন ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আপনার সমস্ত চুল পড়া বন্ধ হয়ে যাবে। পাশাপাশি পাতলা চুল ঘন হবে এবং চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত হবে। নিয়মিত ব্যবহারে পাকা চুলের সমস্যা ও দূর হয়ে যাবে। এবং চুল হয়ে উঠবে ঝরঝরে ও উজ্জ্বল।

দ্বিতীয় টিপস

এর জন্য প্রথমেই একটি বাটির মধ্যে 1 টেবিল চামচ সরিষার তেল নিতে হবে। তারপর এর মধ্যে দিবো 1 টেবিল চামচ অলিভ অয়েল। অলিভ অয়েল চুলকে নরম ও উজ্জ্বল করে তোলে। এটা মাথার ত্বক থেকে খুশকি দূর করে নতুন চুল গজাতেও সহায়তা করে। নিয়মিত অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে চুল ঘন এবং কালো হয়। পাশাপাশি চুলের আগা ফাটাও বন্ধ হয়ে যায়।
এবারের মধ্যে এক চামচ পরিমাণ লেবুর রস দিয়ে ভালো করে মিক্স করে নিতে হবে। লেবুর রস চুল কে ঝরঝরে ও উজ্জল করতে চমৎকার কাজ করে। পাশাপাশি এটা মাথার ত্বক থেকে খুশকি এবং উকুন দূর করে ফেলে। তাছাড়া অকালে চুল পেকে যাওয়া কেও প্রতিরোধ করে। হেয়ার প্যাকটি তৈরি। এবার এই মিশ্রণটি আপনার মাথা ত্বকে পাঁচ মিনিট মাসাজ করুন। মাসাজ করার পর এটা কে আপনার পুরো চুলে ভালো করে এপ্লাই করে নিন। এপ্লাই করার পর এইভাবে এক ঘন্টার জন্য রেখে দিন।

এবং 1 ঘন্টা পর শ্যাম্পুর সাহায্যে আপনার চুলকে পরিষ্কার করে নিন। ভালো রেজাল্ট পাওয়ার জন্য এই হেয়ার  প্যাকটিকে সপ্তাহে 2 দিন ব্যবহার করতে পারেন। তবে অন্তত একদিন ও যদি আপনি এই প্যাকটি ব্যবহার করেন তাহলেও আপনার চুলের জন্য অনেক উপকারী হবে। আর আপনার চুলের গোড়া মজবুত হবে এবং মাথার ত্বকের নতুন চুল গজাবে। পাশাপাশি চুলের বৃদ্ধিতে ও সহায়তা করবে। এবং অকালে চুল পেকে যাওয়া সমস্যারও সমাধান হয়ে যাবে।

এখান থেকে আপনি যে কোন একটি হেয়ার প্যাক আপনার চুলের যত্নে ব্যবহার করতে পারেন। আর আপনার চুল গুলোকে করে নিতে পারেন আরো বেশি সুন্দর, ঝলমলে, মজবুত এবং লম্বা।

Hopefully following the tips, you will get the solution to this problem.

Share with your friends. Help them find out about this.

I hope you understand the matter.

Thank you.

Post a Comment

0 Comments