Recents in Beach

header ads

কিভাবে বাসায় ফেসিয়াল বানাবো | কিভাবে ঘরে বসে ফেসিয়াল বানাবো | কিভাবে ভিটামিন সি ফেসিয়াল বানানো যায়

কিভাবে বাসায় ফেসিয়াল বানাবো | কিভাবে ঘরে বসে ফেসিয়াল বানাবো | কিভাবে ভিটামিন সি ফেসিয়াল বানানো যায়

facial on face

ফেসিয়াল ত্বকের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই আজ আপনাদেরকে শিখাবো ঘরের মধ্যেই কিভাবে ভিটামিন সি ফেসিয়াল করতে পারেন। ভিটামিন সি ত্বককে ব্রিইটেন এবং লাইটেন করতে অসম্ভব কার্যকর। পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করা টা অনেক ব্যয়বহুল হয়ে পরে। কিন্তু আপনার ঘরের মধ্যে থাকা এমন কিছু উপাদান রয়েছে যার সাহায্য আপনি ফেসিয়াল করতে পারেন। আর রেজাল্ট টা কিন্তু একইরকম পাবেন। মানে যাদের কাছে পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করা টা সময়ের ব্যাপার এবং ব্যয়বহুল হয়ে থাকে।

তাদের জন্য এই টিপসটি অনেক কাজে আসবে। এটা ত্বকের ড্রাকনেস দূর করে ত্বকের মধ্যে অসাধারণ একটি উজ্জ্বলতা নিয়ে আসবে। এবং ত্বকের কালো দাগগুলোকে মুছে ফেলবে। আপনি বিশেষ কোন দিন বা পার্টির জন্য অবশ্যই এই ফেসিয়ালটি ব্যবহার করতে পারবেন। এটা রোদে পোড়া ত্বকের কালো দাগ ডেডসেলস এবং হোয়াইট হেডস ও ব্ল্যাক হেডস দূর করে ত্বককে মসৃণ, উজ্জ্বল ও ফর্সা করবে। তবে চলুন শিখে নেয়া যাক ঘরের মধ্যে কিভাবে ভিটামিন সি ফেসিয়াল করবেন।
এর জন্য প্রথমে দরকার পরবে একটি কমলালেবু। আর এই ফেসিয়ালটির প্রধান উপাদান হচ্ছে কমলালেবু। কারণ এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। এবার এর মধ্যে থেকে জুস বের করে নিতে হবে। আর এই জুসের মাধ্যমে ফেসিয়াল টা করতে হবে। ফেসিয়ালটির প্রথম স্টেপ হচ্ছে ক্লিনজিং। এর জন্য একটি বাটির মধ্যে হাফ টেবিল চামচ কমলালেবুর রস নিন। তারপর এর মধ্যে দিব হাফ টেবিল চামচ গোলাপজল।

এবার এই 2টি উপকরণ মিক্স করে নিন। এবার সামান্য তুলোর মাধ্যমে এই ক্লিনজিংটি নিয়ে আপনার ত্বককে ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। ক্লিনজিং করার ফলে আপনার ত্বকের মধ্যে থেকে সকল প্রকার ধুলো ময়লা দূর হয়ে যাবে। ত্বকের পোস্টগুলো গভীরভাবে পরিষ্কার হয়ে যাবে। যার জন্য আপনার ত্বক ফেসিয়াল করার জন্য রেডি হয়ে যাবে। এভাবে 1 থেকে 2 মিনিট পর্যন্ত আপনার ত্বক ক্লিন করে নিন।

তারপর দরকার স্ক্রাবার। স্ক্রাবার বানানোর জন্য একটি বাটির মধ্যে হাফ টেবিল চামচ কমলালেবুর রস নিন। তারপর এর মধ্যে এক চামচ চিনি এবং হাফ চামচ কফি পাউডার দিন। এবার এগুলোকে একসাথে মিশিয়ে নিন। তারপর এই মিশ্রণটির সাহায্যে আপনার ত্বকের মধ্যে 5 মিনিট স্ক্রাব করুন। এভাবে স্ক্রাব করার ফলে ত্বকের মধ্যে থেকে ব্ল্যাকহেডস এবং হোয়াইটহেডস দূর হয়ে যাবে। এবং ত্বকের জমে থাকা ডিটেলস গুলো উঠে চলে আসবে। তাতে করে ত্বকের উজ্জ্বলতা অনেক বেড়ে যাবে। ত্বকের মধ্যে উজ্জ্বলতা নিয়ে আসার জন্য এটি একটি চমৎকার স্ক্রাব। 5 মিনিট স্ক্রাব করে নেওয়ার পর আপনার ত্বক পরিষ্কার করে নিন।

এবার তৈরি করব ফেস মাসাজ জেল। এর জন্য একটি বাটির মধ্যে 1 চামচ কমলালেবুর রস নিন। তারপর এর মধ্যে এক চামচ মধু অ্যাড করে নিন। এবার দিবো ২ থেকে 3 ফোটা নারিকেল তেল। আপনি চাইলে এখানে নারিকেল তেলের পরিবর্তে অলিভ অয়েল, বা আলমন্ড অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন। তারপর দিব হাফ চামচ পরিমাণ অ্যালোভেরা জেল। এবার এই উপকরণগুলো একসাথে মিক্স করে নিন। এই মাসাজ জেলটি আপনি ফ্রিজের মধ্যে 4 থেকে 5 দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করতে পারবেন। এবং ত্বকের মধ্যে ব্যবহার করতে পারবেন। এটা সব ধরনের ত্বকের জন্যই উপযোগী।
এটা ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করতে অনেক ভালো কাজ করে। তাতে ত্বকের মধ্যে থেকে শুষ্কতাও দূর হয়ে যায়। এবার এই ভিটামিন সি জেলের সাহায্যে আপনার ত্বকের মধ্যে ধীরে ধীরে মাসাজ করুন। আর 5 থেকে 6 মিনিট ধীরে ধীরে সার্কুলার মোশনে মাসাজ করতে হবে। এর ফলে আপনার স্কিন ডিপলি ময়েশ্চারাইজ হয়ে যাবে। ত্বকের মধ্যে থেকে ড্রাকনেস দূর করে ফেলবে। এবং ত্বকের মধ্যে গ্লো চলে আসবে। আর রোদে পোড়া দাগগুলো দূর হয়ে যাবে। মাসাজ করার পর এই ভাবেই 5 মিনিটের জন্য রেখে দিন। 

এবং 5 মিনিট পর আপনার ত্বককে পরিষ্কার করে নিন। এবার তৈরি করব ফেসপ্যাক। তার জন্য একটি বাটির মধ্য 1 টেবিল চামচ বেশন নিতে হবে। আপনি চাইলে বেশনের পরিবর্তে মসুরের ডাল বা চালের গুড়োও ব্যবহার করতে পারেন। এবার এর মধ্য কমলালেবুর রস দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর এই মিশ্রণটি আপনার ত্বকের মধ্যে এপ্লাই করে নিন। এপ্লাই করার পর এইভাবে 15 থেকে 20 মিনিটের জন্য রেখে দিন। 

তারপর আপনার ত্বককে নরমাল পানির সাহায্যে পরিষ্কার করে নিন। যেদিন ফেসিয়াল করবেন সেইদিন কোন ভাবেই ত্বকের মধ্যে সাবান ব্যবহার করবেন না। এছাড়াও কোন প্রকার মেকআপ বা বিউটি ক্রিম ব্যবহার করবেন না। শুধুমাত্র মশ্চারাইজার ক্রিমের সাহায্যে আপনার ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে নিন।
ফেসিয়াল করার পর আপনি লক্ষ্য করতে পারবেন আপনার ত্বকের মধ্যে অনেক উজ্জলতা চলে এসেছে।
এই ফেসিয়ালটি আপনার ত্বকের মধ্যে থেকে সব রকমের কালো দাগগুলোকে দূর করে ফেলবে। এবং ত্বককে আগের থেকে ফর্সা করে তুলবে। আপনি যদি আপনার ত্বক সবসময় সুন্দর ও উজ্জ্বল রাখতে চান তাহলে এই ফেসিয়ালটি সপ্তাহে একবার করে ব্যবহার করতে পারেন। তাতে করে আপনার ত্বক সবসময় উজ্জ্বল থাকবে। এবং পার্লারের খরচ কমে যাবে। তো ফ্রেন্ড অবশ্যই একবার এই ফেসিয়ালটি ট্রাই করে দেখবেন।

Hopefully following the tips, you will get the solution to this problem.

Share with your friends. Help them find out about this.

I hope you understand the matter.

Thank you.

Post a Comment

0 Comments